এলিয়াম সিপা

এলিয়াম সিপা

এলিয়াম সিপা লাল পেঁয়াজ নামেও পরিচিত। পেঁয়াজ আমাদের কাছে নতুন নয় কারণ রান্না করার জন্য এই সাধারণ উদ্ভিদটি অধিকাংশই ব্যবহার করে।  পেঁয়াজ এর শক্তিশালী গন্ধ, তাছাড়া এটি অশ্রু বের করতে পারে বলে এর কিছু নিরাময় ক্ষমতা আছে বলে বিশ্বাস করা হয়। সত্যিই আশ্চর্যের বেপার এই যে পেঁয়াজ একটি চমৎকার হোমিওপ্যাথিক প্রতিকারের মধ্যে উদ্ভূত হয়েছে যা অনেকেই নির্ভর করে।

ঠিক যেমন পেঁয়াজ সুস্থ মানুষের চোখ অশ্রুতে ভরতে পারে তেমনি সাধারণভাবে হোমিওপ্যাথিতে এই প্রতিক্রিয়াটি বেশ সহায়ক বলে মনে করা হয়। এলিয়াম একটি হোমিওপ্যাথিক প্রতিকার হিসাবে বিবেচনা করা হয়। পেঁয়াজ সম্পূর্ণ পরিপক্ক বাল্ব, গ্রীষ্মে মেডিসিন তৈরির প্রক্রিয়া শুরু হয়। তারপর দশ দিন এর জন্য এলকোহল মধ্যে ভিজিয়ে রাখা হয় এবং তারপর বার বার নাড়া দেয়া হয়। সম্পূর্ণ হয়ে গেলে, এটি ফিল্টার করা হয়, সফল ভাবে ছাকুনি করা হয়। বাকি অবশেষ যা থাকে সেটি হোমিওপ্যাথিক প্রতিকার হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

এলিয়াম সিপা এর ব্যবহার:

১. শ্লেষ্মা: সর্দি হলে, নাকে পানি আসলে তার জন্য এলিয়াম সিপা খুব কার্যকরী।

২. চোখে জ্বালা: চোখে জ্বালা করার ফলে চোখ প্রায়ই লাল হয়ে যায় এবং এমনকি ফুলে ওঠে তার জন্য এলিয়াম সিপা খুব কার্যকরী।

৩. নিউরালজিক ব্যথা: এলিয়াম সিপা শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের তীব্র ধরনের সকল ব্যথার হোমিওপ্যাথিক প্রতিকার হিসাবে কাজ করতে পারে। এই ব্যথা- মুখ, মাথা, ঘাড়, বা বুকে হতে পারে। এমনকি একটি কানের দুল পড়লেও ব্যাথা হতে পারে, আবার একটি দাঁত উঠলে, বা শুধু সহজ মাথাব্যথা এর জন্য ও দায়ী করা যেতে পারে।

৪. গলা এবং বুকের সংক্রমণ: এটি প্রায়ই গলাতে একটি বেদনাদায়ক সংক্রমণ সঙ্গে শুরু হয় খুসখুসে কাশি হিসাবে দেখায়। ক্রমাগত কাশি এবং ঠান্ডা বাতাসের এক্সপোজার পরে উপসর্গ আরও খারাপ হতে পারে। বুকের মধ্যে শ্বাস প্রশ্বাস নিতে যখন কষ্ট হয় তখন তা নিরাময় করতে এলিয়াম সিপা সাহায্য করতে পারে।

আপনার মন্তব্য লিখুন